• শুক্রবার ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    স্বপ্নচাষ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন  

    রাজশাহীর হিমাগারে ঠাসা আলু, বিপাকে কৃষক ও ব্যবসায়ীরা

    স্বপ্নচাষ প্রতিবেদক

    ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ২:৪৫ অপরাহ্ণ

    রাজশাহীর হিমাগারে ঠাসা আলু, বিপাকে কৃষক ও ব্যবসায়ীরা

    রাজশাহী দুর্গাপুরের শালগাড়িয়ার নিগার হিমাগার (কোল্ডস্টোরেজ) থেকে বিক্রির জন্য বের করা হচ্ছে আলু। মঙ্গলবার তোলা ছবি -স্বপ্নচাষ

    আলু নিয়ে এবারও হিমশিম খাচ্ছেন রাজশাহীর কৃষক ও ব্যবসায়ীরা। তাদের সঙ্গে বেকায়দায় পড়েছেন হিমাগার মালিকরাও। কেননা দাম পড়ে যাওয়ায় লোকসানের ভয়ে হিমাগার থেকে আলু তুলছেন না তারা। এতে রাজশাহীর ৩৬টি হিমাগারের অধিকাংশগুলোতে আলুর স্তূপ জমছে।

    এমন পরিস্থিতিতে আলু হিমাগারেই নষ্ট হওয়া ও মৌসুম শেষে বিপুল সংখ্যক আলু অবিক্রীত থাকার আশঙ্কা করছেন সংশ্নিষ্টরা। ফলে অধিক লাভের আশায় হিমাগারে আলু সংরক্ষণ করে বেকায়দায় পড়েছেন রাজশাহীর কৃষক ও ব্যবসায়ীরা।

    রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, রাজশাহী জেলার নয়টি উপজেলার মোট ৩৬টি হিমাগারে চলতি বছর ২ লাখ ৬৭ হাজার ৬৬৪ মেট্রিকটন ভোগ্য আলু এবং ৫১ হাজার ১ শত ১৬ মেট্রিকটন বীজ আলু সংরক্ষণ করা হয়েছে।

    ভোগ্য আলু ইতিমধ্যে হিমাগার থেকে বের করার সময় হয়ে গেছে। কিন্তু বাজারে আলুর দাম কম হওয়ায় তা বের করা হচ্ছে না। বর্তমান বাজারে সর্বোচ্চ ৫’শ থেকে ৭’শ টাকা মণ দরে আলু বিক্রি হচ্ছে। এই দরে আলু বিক্রি করে লোকসান গুনতে হচ্ছে চাষি ও ব্যবসায়ীদের। কারণ জমি থেকে আলু বাজারজাত পর্যন্ত মণ প্রতি ৬’শ থেকে ৭’শত টাকা খরচ হয়ে যায়।

    এছাড়া এক বস্তা আলু হিমাগারে সংরক্ষণ করতে আরো ২’শ থেকে আড়াইশত টাকা খরচ হয়। ফলে অনেক লোকসান গুনতে হচ্ছে চাষি এবং ব্যবসায়ীদের।

    রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক কে জে এম আব্দুল আউয়াল বলেন, “একজন কৃষক নিজের জমি থেকে আলু উৎপাদন করতে শ্রমবাদে কেজি প্রতি খরচ হয় ১৫ টাকা। আর একজন বর্গাচাষীর শ্রমিকসহ আলু উৎপাদনে খরচ হয় প্রতি কেজি ১৭ টাকা পঞ্চাশ পয়সা। সেই হিসেবে আলুর উৎপাদন খরচ হয় প্রতি মণ ৬০০ থেকে ৭০০ টাকা। কিন্তু বর্তমানে আলু বাজার ৭০০ টাকার নিচে।

    এছাড়া হিমাগারে সংরক্ষণ করতে আরো টাকা লাগে। ফলে আলু চাষ করে চাষিরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।

    রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার আলু চাষি আব্দুস সামাদ জানান, গত মৌসুমের শেষের দিকে আলুর ভাল দাম পাওয়া গেছে। কিন্তু এ বছর পুরো মৌসুমই আলু দাম কম। বর্তমানে প্রতি বস্তা (৮৫ কেজি) আলুর দাম ১২শ’ থেকে ১৪শ’ হলেও উৎপাদন খরচ উঠছে না। হিমাগারে আলু রেখে বস্তা প্রতি ৩’শ থেকে ৪’শ টাকা ক্ষতি হচ্ছে। এই দামে আলু বিক্রি করে লোকসান গুণতে হচ্ছে। বর্তমানে হিমারগার যে আলু বের হচ্ছে তা ১২ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

    এছাড়া একটু খারাপ মানের আলু ৭ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। ফলো হিমাগারে আলু রেখে চরম লোকশানের মুখে পড়েছি।

    স্বপ্নচাষ/একে

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ২:৪৫ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

    swapnochash24.com |

    advertisement

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
    advertisement

    সম্পাদক : এনায়েত করিম

    প্রধান কার্যালয় : ৫৩০ (২য় তলা), দড়িখরবোনা, উপশহর মোড়, রাজশাহী-৬২০২
    ফোন : ০১৫৫৮১৪৫৫২৪ email : swapnochash@gmail.com

    ©- 2021 স্বপ্নচাষ.কম কর্তৃক সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।