• রবিবার ৯ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ২৬শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    স্বপ্নচাষ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন  

    যশোরের বাজারে ‘চাঁদ রাতের মতো ভিড়’

    স্বপ্নচাষ ডেস্ক

    ১৯ মে ২০২০ ৩:১৯ পূর্বাহ্ণ

    যশোরের বাজারে ‘চাঁদ রাতের মতো ভিড়’

    মঙ্গলবার থেকে ফের যশোরের সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আগের দিন সোমবার শহরেজুড়ে ছিল মানুষের ঢল। বাজারে ঈদের কেনাকাটার ধুম। ক্রেতা সামলাতে হিমশিম বিক্রেতারাও। কথা বলার যেন ফুসরত নেই।

    কাজের ফাঁকে একজন বিক্রেতা বললেন, আগামীকাল থেকে আবার মার্কেট বন্ধ। তাই চাঁদ রাতের মতো ভিড় লেগেছে। বেচাকেনাও জমজমাট।

    স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব না মানায় মার্কেট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জেলা প্রশাসন। ১৭ মে জেলা প্রশাসনের জরুরি সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এর আগে টানা ৪৪ দিন পর গত ১০ মে সীমিত পরিসরে দোকানপাট খোলার অনুমতি দেয়া হয়। কিন্তু এক সপ্তাহে মানুষের উপচেপড়া ভিড়ে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বেড়ে যাওয়ায় সেই সিদ্ধান্ত বাতিল করা হয়েছে।

    সোমবার সকাল থেকেই যশোর শহরের এইচ এম এম রোড, এমকে রোড, কালেক্টরেট মার্কেটসহ বিভিন্ন মার্কেট ও সংলগ্ন সড়কে মানুষের ঢল নামে। জেলা প্রশাসনের শর্তানুয়ায়ী অধিকাংশ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে স্বাস্থ্যবিধি মানা হয়নি। ছিল না সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব। কেনাকাটার অজুহাতে হাজার হাজার মানুষের সমাগম হয়।

    বিকালে যশোর শহরের এইচ এম এম রোডের মডার্ন ক্লথ স্টোরের প্রবেশদ্বারে দাঁড়িয়ে পুলেরহাট এলাকার গৃহবধূ সামিয়া আক্তার। সঙ্গে সাত বছরের মেয়ে ও কোলে তিন বছরের শিশু রয়েছে। সকাল থেকে মার্কেট থেকে মার্কেটে ছুটতে ছুটতে তাদের চোখেমুখে ক্লান্তির ছাপ।

    ভিড়ের কারণে সকাল গড়িয়ে বিকাল হলেও এখনো কেনাকাটা শেষ হয়নি। নেই তার কোন স্বাস্থ্য সুরক্ষা। নিজে মাস্ক পরলেও; তার দুই শিশু সন্তানের নেই কোনো স্বাস্থ্য সুরক্ষা।

    তিনি জানালেন, ‘শুনছি আবার মার্কেট বন্ধ হয়ে যাবে। তাই তাড়াহুড়ো করে আইছি’। মাস্ক পড়ার সময়ই পায়নি। শুধু সামিয়া আক্তার নয়; শহরের শপিং করতে আসা এমন লোকের দৃশ্য ভরি ভরি।

    ঢাকা বস্ত্রালয়ের বিক্রেতা মাসুদুর রহমান জানান, এই কয়েক দিন বেচাকেনা হইলেও ঈদ-ঈদ লাগে নাই। আজকে দোকান খোলার সঙ্গে সঙ্গে কাস্টমার আসছে। আজকের দিনে কথা বলারও ফুরসত নেই দোকানিদের। ক্রেতা সামলাতে তারা ভীষণ ব্যস্ত। মনে হচ্ছে চাঁদ রাত।

    যশোরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শফিউল আরিফ জানান, সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে সীমিত আকারে যশোরে বাজার খুলে দেয়া হয়। সেইসঙ্গে বাজার মনিটরিং কমিটির সদস্যরা সারাক্ষণ মাইকিংসহ সামাজিক দূরত্ব রক্ষার আপ্রাণ চেষ্টা চালায়। কিন্তু বাজারে ব্যবসায়ী এবং ক্রেতারা সামাজিক দূরত্ব বজায় না রাখায় যশোরে করোনা রোগীর সংখ্যা দিনকে দিন বাড়ছে। সে কারণে জেলা প্রশাসন মার্কেট বন্ধ ঘোষণা করেছে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও সরকারি নির্দেশনা পালনে আগের মতোই জেলা প্রশাসনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

    স্বপ্নচাষ/আরএস

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ৩:১৯ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, ১৯ মে ২০২০

    swapnochash24.com |

    advertisement

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
    advertisement

    সম্পাদক : এনায়েত করিম

    প্রধান কার্যালয় : ৫৩০ (২য় তলা), দড়িখরবোনা, উপশহর মোড়, রাজশাহী-৬২০২
    ফোন : ০১৫৫৮১৪৫৫২৪ email : swapnochash@gmail.com

    ©- 2021 স্বপ্নচাষ.কম কর্তৃক সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।