• বুধবার ২৭শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    স্বপ্নচাষ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন  

    মান্দায় হলুদ বর্ণে সেজেছে ফসলের মাঠ

    স্বপ্নচাষ প্রতিবেদক, নওগাঁ

    ০৬ জানুয়ারি ২০২১ ৫:৩৮ অপরাহ্ণ

    মান্দায় হলুদ বর্ণে সেজেছে ফসলের মাঠ

    বর্ষার পর মাঠের পানি শুকিয়ে গেছে অনেক আগেই। আবার অনেক মাঠে আমন ধানও কেটে নেওয়া হয়েছে। এরপর চাষযোগ্য হয়েছে জমি। সেইসব মাঠে চাষ করা হয়েছে সরিষা। সবে গাছগুলোতে ফুল এসেছে। এখন যতদূর চোখ যায় বিস্তীর্ণ মাঠজুড়ে কেবল হলুদ আর হলুদ। দেখে মনে হয় কেউ যেন হলুদবরণ আলপনা দিয়ে ঢেকে রেখেছে এই প্রান্তর।
    সেই হলুদ ফুলের মৌ মৌ গন্ধে মাঠের একপ্রাপ্ত থেকে অপর প্রান্তে ছুটে চলেছে মৌমাছির দল। ফুলে-ফুলে ঘুরে মধু সংগ্রহে তাদের এই ছুটে চলা। গুনগুন গুঞ্জনে মুখরিত হলুদের মাঠ। খেতজুড়ে সরিষার এমন ফুলের মেলায় কৃষকের চোখে এখন হাসির ঝিলিক।

    নওগাঁর মান্দা উপজেলার বিভিন্ন মাঠে এখন চোখে পড়ে এমন দৃশ্য। প্রান্তরজুড়ে দোল খাচ্ছে শীতের শিশির ভেজা সরিষা ফুলের গাছগুলো। সরিষার সবুজ গাছের হলুদ ফুল শীতের সোনাঝরা রোদে ঝিকিমিকি করছে। যেন প্রকৃতিকন্যা সেজেছে হলুদবরণ সাজে। চির সবুজের বুকে এ যেন কাঁচা হলুদের আলপনা।

    সংশ্লিষ্ট সুত্র জানায়, উচ্চ ফলনশীল জাতের এ আবাদে চাষিরা ধারাবাহিতভাবে লাভবান হতে থাকায় তারা এ চাষে ঝুঁকে পড়েছেন। তবে বিগত বছরের তুলনায় এ বছর চাষাবাদ কমে যাওয়ার কারণ হিসেবে অসময়ে অতিরিক্ত বৃষ্টিপাত ও জলাবদ্ধতাকে দায়ী করছেন কৃষি বিভাগ। তবে এবছর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় কৃষকদের আবাদ করা জাতের মধ্যে রয়েছে বারী-১৪, ১৫ ও ১৭, বিনা-৪ ও ৯, টরি-৭ এবং স্থানীয় জাত।

    উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর সুত্রে জানা গেছে, চলতি রবি মৌসুমে উপজেলার ১৪ ইউনিয়নের ৪ হাজার ৩০৫ হেক্টর জমিতে সরিষার আবাদ হয়েছে। এর মধ্যে ৪ হাজার ২৫৫ হেক্টর জমিতে উচ্চ ফলনশীল ওস্থানীয় জাতের চাষ হয়েছে ৫০ হেক্টর জমিতে। আবহাওয়া অনুকুল হলে এ চাষ থেকে ১ লাখ ২৯ হাজার ১৫০ মণ সরিষা উৎপাদন হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে।

    সূত্রটি আরও জানান, গতবছর এ উপজেলায় ৫ হাজার ৫৪০ হেক্টর জমিতে সরিষার চাষ হয়েছিল। এবছর অসময়ে অতিরিক্ত বৃষ্টিপাতের কারণে অনেক মাঠে জলবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। সময়মত পানি শুকিয়ে জমি চাষযোগ্য না হওয়ায় এ বছর চাষ কিছুটা কম হয়েছে।

    উপজেলার পশ্চিম নুরুল্লাবাদ গ্রামের কৃষক আসলাম হোসেন চলতি মৌসুমে ৫ বিঘা জমিতে সরিষার আবাদ করেছেন। গতবছর এ চাষে লাভবান হওয়ায় এবার বেশি জমিতে এ আবাদ করেছেন তিনি। শুধু আসলাম নন গ্রামের মাঠজুড়ে হয়েছে সরিষার আবাদ।

    কৃষক আফজাল হোসেন, আব্দুল মতিনসহ আরও অনেকে জানান, আমন ও বোরো মৌসুমের মাঝখানে অনেকটা সময় মাঠের জমি পতিত অবস্থায় পড়ে থাকে। এসময় উচ্চ ফলনশীল সরিষার আবাদ করে লাভবান হচ্ছেন কৃষক। তারা বলেন, উৎপাদিত সরিষা বিক্রির টাকা বোরো ধানচাষে ব্যয় করা হচ্ছে। এছাড়া সরিষার কাঁটা জ্বালানী হিসেবে ব্যবহার করছেন তারা।

    মান্দা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শায়লা শারমিন বলেন, চলতি বছর অতিরিক্ত বৃষ্টিপাতের কারণে অনেক মাঠে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। এ কারণে গতবছরের তুলনায় সরিষার আবাদ কিছুটা কম হয়েছে। তিনি আরও বলেন, এখন পর্যন্ত অনুকূল আবহাওয়া বিরাজ করছে। ফসল ঘরে তোলা পর্যন্ত এমন আবহাওয়া থাকলে সরিষার বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে।

    স্বপ্নচাষ/একে

    Facebook Comments

    বাংলাদেশ সময়: ৫:৩৮ অপরাহ্ণ | বুধবার, ০৬ জানুয়ারি ২০২১

    swapnochash24.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১  

    সম্পাদক : এনায়েত করিম

    সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: গুরুদাসপুর, নাটোর-৬৪৩০
    ফোন : ০১৫৫৮১৪৫৫২৪ email : swapnochash@gmail.com

    ©- 2021 স্বপ্নচাষ.কম কর্তৃক সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।