• মঙ্গলবার ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১লা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    স্বপ্নচাষ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন  

    ভিয়েতনামে আটক বাংলাদেশিরা চাকরিও পাচ্ছে না, ফিরতেও পারছে না

    স্বপ্নচাষ ডেস্ক

    ০৯ জুলাই ২০২০ ৭:০৪ অপরাহ্ণ

    ভিয়েতনামে আটক বাংলাদেশিরা চাকরিও পাচ্ছে না, ফিরতেও পারছে না

    সুনাম ও চাহিদার কারণে বিদেশে শ্রমশক্তি রফতানি হচ্ছে। এ এক শ্রেসুযোগে ণির অসাধু দালাল চক্র স্বল্প আয়ের মানুষদের প্রলোভন দেখিয়ে আন্তর্জাতিক চক্রের যোগসাজশে অবৈধভাবে বিদেশে পাঠাচ্ছে। কিন্তু চাকরি না পেয়ে প্রতারণার শিকার অনেক নিরীহ বাংলাদেশি বিভিন্ন দেশে মানবেতর জীবনযাপন করছে। অনেকেই ঝুঁকিপূর্ণ পথে বিদেশ যেতে পথে মৃত্যুর মুখে পড়ছে। অনেকে আবার অবৈধভাবে বিদেশে অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশি নৃশংস হত্যাকাণ্ডের মতো ঘটনার শিকার হচ্ছে।

    সম্প্রতি ভিয়েতনাম থেকে ১১ বাংলাদেশি অভিবাসী দেশে ফেরেন। তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব অনুসন্ধানের পর বুধবার (৮ জুলাই) রাতে রাজধানীর পল্টন এলাকা হতে অবৈধভাবে বাংলাদেশি নাগরিকদের ভিয়েতনামে পাঠানো পাচারচক্রের মূলহোতাসহ ৩ জন গ্রেফতার করা হয়। এ সময় জব্দ করা হয় বিভিন্ন নামীয় ২৫৪টি বাংলাদেশি পাসপোর্ট। গ্রেফতাররা হলেন- মানবপাচারকারী চক্রের মূলহোতা জামাল উদ্দিন সোহাগ (৩৪), কামাল হোসেন (৩৯) ও জামাল হোসেন (৩৭)।

    বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটায় কারওয়ান বাজার র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-৩ অধিনায়ক (সিও) লে. কর্নেল রকিবুল হাসান।

    তিনি বলেন, গত ৩ জুলাই বিশেষ ফ্লাইট নং-ভিজে ৬৯৫৮ যোগে ভিয়েতনাম থেকে ১১ বাংলাদেশি অভিবাসী ফেরেন। এছাড়া আরও ২৭ জন অভিবাসী ভিয়েতনামে আটক অবস্থায় মানবেতর জীবনযাপন করছে। ভিয়েতনাম ফেরত ১১ জনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে র‌্যাব প্রাথমিক অনুসন্ধান শুরু করে। প্রাথমিক অনুসন্ধানে ঘটনার সাথে মাশ ক্যারিয়ার সার্ভিস, দি জেকে ওভারসিস লিমিটেড, অ্যাডভেন্ট ওভারসিস লিমিটেড, মেসার্স সন্ধানী ওভারসিস লিমিটেড এবং আল নোমান হিউম্যান রিসোর্স লিমিটেডসহ স্থানীয় দালাল ও ভিয়েতনামে বাংলাদেশি দালাল আব্দুল জব্বার, মোস্তফা, গোলাম আজম সুমন, কল্পনা, আজমির, মিলন, শোভন ও আতিকের সংশ্লিষ্টতার সত্যতা পাওয়া যায়। এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৩ এর একটি বিশেষ দল মাশ ক্যারিয়ার সার্ভিস ও দি জেকে ওভারসিস লিমিটেড ওই তিনজন মানবপাচারকারীকে গ্রেফতার করা হয়।

    প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, গ্রেফতাররা একাধিকবার ভিয়েতনামে গিয়ে সেখানকার দালালদের সঙ্গে বৈঠক করেন। ওই বৈঠকে ভিয়েতনামের দালালরা জানায়, বাংলাদেশ থেকে ব্যবসায়িক উদ্যোক্তাদের ভিয়েতনামে কাজ করার সুযোগ রয়েছে। এরপর উল্লেখিত এজেন্সিগুলো বাংলাদেশের সাধারণ লোকজনকে স্থানীয় দালালদের মাধ্যমে মাসে ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা ভিয়েতনামের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কাজ করে আয় করা সম্ভব বলে প্রলোভন দেখায়। এমন প্রলোভনে প্রলুব্ধ হয়ে বিভিন্ন লোকজন ভিয়েতনামে যেতে আগ্রহ দেখায়। আগ্রহী প্রতিজনের কাছ থেকে ৪ লাখ টাকা করে নেয়। ওই টাকার বিনিময়ে পাসপোর্ট বানানো এবং পাসপোর্টের তথ্যসমূহ ভিয়েতনামের দালালদের কাছে পাঠানো হয়।

    স্বপ্নচাষ/এসএম

     

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ৭:০৪ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৯ জুলাই ২০২০

    swapnochash24.com |

    advertisement

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
    advertisement

    সম্পাদক : এনায়েত করিম

    প্রধান কার্যালয় : ৫৩০ (২য় তলা), দড়িখরবোনা, উপশহর মোড়, রাজশাহী-৬২০২
    ফোন : ০১৫৫৮১৪৫৫২৪ email : swapnochash@gmail.com

    ©- 2021 স্বপ্নচাষ.কম কর্তৃক সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।