• শুক্রবার ২৭শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    স্বপ্নচাষ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন  

    ডেঙ্গু রোধে ডিএনসিসিতে ৮ ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান

    স্বপ্নচাষ ডেস্ক

    ১০ মে ২০২০ ৯:৪৬ অপরাহ্ণ

    ডেঙ্গু রোধে ডিএনসিসিতে ৮ ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান

    সংগৃহীত

    ডেঙ্গু থেকে নগরবাসীকে সুরক্ষা দিতে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে (ডিএনসিসি) আটটি ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালানো হয়েছে।

    রোববার (১০ মে) ডিএনসিসির আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা (অঞ্চল-১) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জুলকার নায়নের নেতৃত্বে উত্তরায়; আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা (অঞ্চল-২) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এ এস এম শফিউল আজমের নেতৃত্বে মিরপুরে, আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা (অঞ্চল-৩) মীর নাহিদ আহসানের নেতৃত্বে তেজগাঁওয়ে; নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শেখ মুর্শিদুল ইসলামের নেতৃত্বে মিরপুরে; আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা (অঞ্চল-৫) মাসুদ হোসেনের নেতৃত্বে রাজাবাজার এলাকায়; আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা (অঞ্চল-৬) সাজিয়া আফরিনের নেতৃত্বে উত্তরায়; আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা (অঞ্চল-৭ ও ৮) আবেদ আলীর নেতৃত্বে উত্তরখানে এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রোসিলিনা পারভীনের নেতৃত্বে মিরপুরে এ অভিযান চালানো হয়।

    জুলকার নায়ন উত্তরা ৬ ও ৮ নম্বর সেক্টরে মোট ১২টি নির্মাণাধীন ভবন, প্রতিষ্ঠান ও বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় দুটি বাড়িতে এডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেলে ডিএনসিসির মশককর্মীগণ সেখানে কীটনাশক প্রয়োগ করে তা ধ্বংস করেন। তবে মালিকরা ভবিষ্যতে এ বিষয়ে আরও সচেতন থাকবেন মর্মে অঙ্গীকার করায় কোনো জরিমানা করা হয়নি। এছাড়া মালিক ও কেয়ারটেকারবিহীন একটি বাড়িতে এডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেলে সে বাসায় নোটিশ দেয়া হয়।

    এ এস এম শফিউল আজমের নেতৃত্বে মিরপুরে ১৯টি ভবন ও স্থাপনায় অভিযান চালানো হয়। সেখানে দুটি ভবন-স্থাপনায় এডিস মশার প্রজনন উপযোগী পরিবেশ পাওয়া গেলে মোট ৫ হাজার টাকা জরিমানা করে আদায় করা হয়। এছাড়া আরও চারটি স্থাপনার মালিককে নোটিশ দেয়া হয়।

    মীর নাহিদ আহসানের নেতৃত্বে তেজগাঁও শিল্প এলাকায় মোট ১৫টি অভিযান চলে। এসময়ে এডিস মশার লার্ভা পাওয়া যাওয়ায় দুটি প্রতিষ্ঠান থেকে মোট ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। এছাড়া এডিস মশার বংশবিস্তার উপযোগী পরিবেশ থাকায় সেগুলো পরিষ্কারের জন্য তিনটি প্রতিষ্ঠানকে ২৪ ঘণ্টা সময় দেয়া হয়।

    শেখ মুর্শিদুল ইসলামের নেতৃত্বে মিরপুরের বড়বাগ, মনিপুর, পীরেরবাগ, সেনপাড়া পর্বতা, কাফরুল, ইব্রাহিমপুর, কচুক্ষেত এলাকায় অভিযানে প্রায় ১০০ বাসা-বাড়ি ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করা হয়। তবে কাউকে জরিমানা করা হয়নি।

    মো. মাসুদ হোসেনের নেতৃত্বে পূর্ব রাজাবাজার এলাকায় পাঁচটি নির্মাণাধীন ভবন পরিদর্শন করা হয়। নির্মাণ প্রতিষ্ঠান ডিওএম-আইএনএনও’র নির্মাণাধীন একটি ভবনে খুবই অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ বিরাজ করায় নিয়মিত মামলার কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়। গত বছর একই প্রতিষ্ঠানকে তিনবার জরিমানা করা হয়েছিল। এছাড়া আরেকটি প্রতিষ্ঠানকে পরিবেশ পরিচ্ছন্ন রাখতে নির্দেশনা দেয়া হয়।

    সাজিয়া আফরিনের নেতৃত্বে উত্তরা ১২ নম্বর সেক্টরে সাতটি ভবন ও স্থাপনা পরিদর্শন করা হয়। তবে কাউকে জরিমানা করা হয়নি। অভিযান চলাকালে রাস্তায় ফেলে রাখা ডাবের খোলা, পরিত্যক্ত পাত্র ও বিভিন্ন দোকানের সামনে জমা পানি অপসারণ করে সংশ্লিষ্টদের সতর্ক করা হয়।

    মো. আবেদ আলীর নেতৃত্বে উত্তরখানের মাজার রোড এলাকায় অভিযান চলে। এসময়ে কোনো এডিস মশার লার্ভা পাওয়া যায়নি। তবে এলাকাবাসীকে এ বিষয়ে সচেতন করা হয়।

    রোসলিনা পারভীনের নেতৃত্বে মিরপুরের পল্লবী এলাকায় নির্মাণাধীন তিনটি ভবন পরিদর্শন করে দুটিতে এডিস মশার বংশবিস্তার উপযোগী পরিবেশ পাওয়া যায়। তখন সংশ্লিষ্টদের পাঁচ হাজার ৩০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

    স্বপ্নচাষ/এসএস

    Facebook Comments

    বাংলাদেশ সময়: ৯:৪৬ অপরাহ্ণ | রবিবার, ১০ মে ২০২০

    swapnochash24.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০  

    সম্পাদক : এনায়েত করিম

    সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: গুরুদাসপুর, নাটোর-৬৪৩০
    ফোন : ০১৫৫৮১৪৫৫২৪ email : swapnochash@gmail.com

    ©- 2020 স্বপ্নচাষ.কম কর্তৃক সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।