• মঙ্গলবার ১৮ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    স্বপ্নচাষ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন  

    কৃষকদের ন্যায্যমূল্য দিতেই ধান ও চালের দাম নির্ধারণ করেছে সরকার: খাদ্যমন্ত্রী

    স্বপ্নচাষ প্রতিবেদক, নওগাঁ

    ২৮ এপ্রিল ২০২১ ১১:৩৪ অপরাহ্ণ

    কৃষকদের ন্যায্যমূল্য দিতেই ধান ও চালের দাম নির্ধারণ করেছে সরকার: খাদ্যমন্ত্রী

    বুধবার নওগাঁয় ধান ক্রয়ের উদ্বোধন করা হয়

    খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি বলেছেন, প্রধানন্ত্রীর নির্দেশে কৃষকদের ন্যায্যমূল্য দিতেই সরকার এবার ২৭ টাকা কেজি দরে সাড়ে ৬ লাখ মেট্রিক টন ধান ও ৪০ টাকা কেজি দরে ১০ লাখ টন সিদ্ধ চাল ও ৩৯ টাকা দরে দেড় লাখ মেট্রিকটন আতপ চালের দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে। অনেকেই বরাদ্দ বাড়ানোর কথা বলেছেন। আগে আমরা দেখবো যদি কৃষকেরা নায্যমূল্যে থেকে বঞ্চিত হয় তাহলে বরাদ্দ বাড়ানো হবে। তবে আগে আমাদের কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে পোঁছাতে হবে। কোন ক্রমেই এই লক্ষ্যে পৌঁছাতে গাফলতি করা যাবে না। তিনি গতকাল বুধবার দুপুরে নওগাঁ, বগুড়া, দিনাজপুর, নেত্রকোনাসহ ৯টি জেলায় ঢাকা থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে বোরো ধান ক্রয়ের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

    খাদ্য বিভাগের কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, কৃষক ও মিল মালিকদের সাথে ভালো ব্যবহার করে দেশের খাদ্য মজুদ গড়ে তুলতে হবে। এছাড়াও কোন কৃষক যাতে গুদামে ধান দিতে এসে হয়রানির ও নির্যাতনের শিকার না হয় সেদিকে আমাদের নজর আছে। তবে ধান-চালের কোয়ালিটির সাথে কোন আপোস নাই। কারণ এই চাল আমরা মিলে ক্রয় করি। সেগুলো আবার ওএমএস ডিলারের মাধ্যমে বাজার নিয়ন্ত্রনের জন্য আমরা দরিদ্রদের মাঝে দেয়া হয়। এছাড়াও সেনাবাহিনী, পুলিশ বাহিনী থেকে শুরু করে বিভিন্ন জায়গায় যায়। তাই আমরা এই দুর্নামের ভাগি হতে চাই না। তাই দ্ব্যার্থ কণ্ঠে বলতে চাই এর সাথে কোন আপোস হবে না।
    মন্ত্রী বলেন, অনেকেই আড়তদার ব্যবসা করেন। কিন্তু তাদের পূর্বের লাইসেন্স নেই। যাদের পূর্বের লাইসেন্স নেই তাদেরকে অবশ্যই পূর্বের লাইসেন্স করে নিতে হবে এবং সাত দিন পর পর খাদ্য নিয়ন্ত্রকের কাছে তাদের রিটার্ন দাখিল করতে হবে। সাত দিনে কত ধান ক্রয় করলো, কোন মিল মালিকের কাছে বিক্রি করলো সেই নাম ও নাম্বার উল্লেখ করে রিটার্ন দাখিল করতে হবে। তাহলে আমরা একটা ধারণা পাব কোন মিলে কত ধান মজুদ রয়েছে। না হলে আমরা হিসাব পাব না।

    গত বছর তথ্য বিভ্রান্তের কারণে আমরা একটু বিপদে পড়েছিলাম। তাই সেই বিপদ আমরা আর পড়তে চাই না। তাই আমরা আগে থেকেই সতর্ক থাকতে চাই। এছাড়াও মিল মালিকদের সময় মত চুক্তি ও সময় মত গুদামে চাল দেয়ার আহবান জানান। সরকার কৃষকদের উৎপাদিত ফসলের নায্যমূল্য নিশ্চিত করাসহ নানা সুযোগ সুবিধা প্রদান অব্যাহত রেখেছে। কারণ এ সরকার বিশ্বাস করে কৃষক বাঁচলে দেশ বাঁচবে। কাজেই প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছায় ও নির্দেশে কৃষকদের সুযোগ সুবিধার মধ্যে কৃষি প্রনোদনা এবং কৃষি পুনর্বাসন কর্মসূচিসহ বিভিন্ন কর্মসূচির আওতায় সারাদেশে লাখ লাখ কৃষকদের মধ্যে কৃষি প্রণোদনা বিতরণ করা হচ্ছে। এ সময় ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য রাখেন খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. নাজমানারা খানমসহ খাদ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।

    নওগাঁ সদরের খাদ্যগুদামে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মো. হারুন-অর-রশীদ। বক্তব্য রাখেন জেলা জেলা চাল কল মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ হোসেন চকদার, প্রেসক্লাবের সভাপতি বিশ্বজিৎ সরকার মুনি ও যুগ্ম সম্পাদক শফিক ছোটন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান মিয়া, রাজশাহীর আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক জিএম ফারুক পাটোয়ারী, জেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শামসুল ওয়াদুদ, জেলা চাল কল মালিক গ্রুপের সভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম, সদর খাদ্যগুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আতিকুল ইসলামসহ স্থানীয় পর্যায়ের বিভিন্ন প্রশাসনিক কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

    স্বপ্নচাষ/ আমি

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ১১:৩৪ অপরাহ্ণ | বুধবার, ২৮ এপ্রিল ২০২১

    swapnochash24.com |

    advertisement

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
    advertisement

    সম্পাদক : এনায়েত করিম

    প্রধান কার্যালয় : ৫৩০ (২য় তলা), দড়িখরবোনা, উপশহর মোড়, রাজশাহী-৬২০২
    ফোন : ০১৫৫৮১৪৫৫২৪ email : swapnochash@gmail.com

    ©- 2021 স্বপ্নচাষ.কম কর্তৃক সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।