• বুধবার ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    স্বপ্নচাষ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন  

    এই জয় ব্রাজিলের বিপক্ষে ৭-১ জয়ের চেয়েও ভালো: মুলার

    স্বপ্নচাষ ডেস্ক

    ১৬ আগস্ট ২০২০ ১:০৪ অপরাহ্ণ

    এই জয় ব্রাজিলের বিপক্ষে ৭-১ জয়ের চেয়েও ভালো: মুলার

    চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের একমাত্র লেগে স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনাকে ২-৮ গোলে গুঁড়িয়ে দিয়েছে জার্মান চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন মিউনিখ। বায়ার্নের টমাস মুলার এবং ফিলিপ্পে কৌতিনহো দুজনেই জোড়া গোল করেছেন। বাকি গোল এসেছে ইভান পেরিসিচ, সার্জি জিন্যাব্রি, জশুয়া কিমিচ এবং রবার্ট লেভান্ডভস্কির পা থেকে।

    অপরদিকে বার্সার হয়ে বায়ার্নের রক্ষণ ভাঙতে সক্ষম হয়েছেন একমাত্র লুইস সুয়ারেস। বাকি গোল অদ্ভুত এক ভুল করে (বার্সার জর্দি আলবার ক্রস নিজেদের গোলরক্ষকের দিকে ঠেলে দিতে গিয়ে জালে জড়িয়ে দেন আলাবা) বার্সাকে উপহার দিয়েছেন বায়ার্নের ডিফেন্ডার ডেভিড আলাবা।

    শুক্রবার রাতে হওয়া ঐতিহাসিক এই ম্যাচের নায়ক থোমাস মুলারের ঘোর কাটছে না ২৪ ঘণ্টা পরেও। তাঁর প্রতিক্রিয়া, ‘‘এই পারফরম্যান্স এবং ফলের ব্যাখ্যা, বিশ্লেষণ করা খুব কঠিন কাজ। ম্যাচ সেরা হয়ে ভালই লাগছে। কিন্তু আমাদের দলের বাকিরাও এই পুরস্কারের দাবিদার। দলগত সংহতিকে আমরা এমন জায়গায় নিয়ে গিয়েছি যে আমাদের হারানো খুব কঠিন।’’

    বার্সার বিরুদ্ধে জোড়া গোল করে আবেগাপ্লুত নায়ক মুলারের সংযত প্রতিক্রিয়া, ‘‘ফোন আর এসএমএস বার্তায় ভাসছি। কিন্তু এবার সব ভুলে যেতে হবে। কারণ, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিততে না পারলে এই জয় অর্থহীন হয়ে যাবে। মনে রাখতে হবে, এ রকম বড় জয়ের পরেই কিন্তু বিপর্যয় ধেয়ে আসে অনেক সময়ে।’’

    যোগ করেছেন, ‘‘তবে বার্সেলোনার মতো বড় দলের বিরুদ্ধে এ রকম জয়ের আনন্দই আলাদা। বার্সার মতো তারকাখচিত দলের বিরুদ্ধে শুরু থেকেই আমরা আক্রমণাত্মক ছিলাম। বিপক্ষ বলের দখল নিয়ে আমাদের পরাস্ত করলেও ঘাবড়াইনি। বরং আমাদের লক্ষ্য ছিল, বল পেলেই দ্রুত বার্সেলোনা রক্ষণে হানা দিতে হবে। সেটা করতে পেরেছি বলেই এই ফল।’’

    ফুটবল বিশেষজ্ঞদের কেউ কেউ আবার এই বড় জয় দেখে তুলনা করছেন ২০১৪ বিশ্বকাপে ব্রাজিল বনাম জার্মানির ঐতিহাসিক আর এক ম্যাচে মুলারদের ৭-১ জয়ের মুহূর্তকে। উল্লেখ্য, সেই ম্যাচে জার্মানির হয়ে প্রথম গোলটি করেছিলেন মুলারই। আর বর্তমান বায়ার্ন ম্যানেজার ফ্লিক তখন ছিলেন জার্মান কোচ জোয়াকিম লো-র সহকারী।

    এ প্রসঙ্গে মুলার বলছেন, ‘‘ব্রাজিলের বিরুদ্ধে ওই ম্যাচটায় এই খেলার মতো নিয়ন্ত্রণ ছিল না। সে দিন আমরা নিজেদের ছাপিয়ে গিয়েছিলাম। কিন্তু বার্সেলোনার বিরুদ্ধে এই ম্যাচে বায়ার্নের প্রত্যেকে শুরু থেকেই নৃশংসভাবে ম্যাচের রাশ নিজেদের হাতে রেখে দিয়েছিল।’’

    স্বপ্নচাষ/এসএম

    Facebook Comments

    বাংলাদেশ সময়: ১:০৪ অপরাহ্ণ | রবিবার, ১৬ আগস্ট ২০২০

    swapnochash24.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০  

    সম্পাদক : এনায়েত করিম

    সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: গুরুদাসপুর, নাটোর-৬৪৩০
    ফোন : ০১৫৫৮১৪৫৫২৪ email : swapnochash@gmail.com

    ©- 2020 স্বপ্নচাষ.কম কর্তৃক সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।